Home » সাহসিকতার নজির ডিএমজি সেপাই সৌমেন হাইত ও সিভিক ভলান্টিয়ার সঞ্জীব নস্কর

সাহসিকতার নজির ডিএমজি সেপাই সৌমেন হাইত ও সিভিক ভলান্টিয়ার সঞ্জীব নস্কর

 কোলকাতা পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়,  কোজাগরী লক্ষ্মী পুজোর পরবর্তী বিসর্জন উপলক্ষ্যে কলকাতায় বিসর্জন যাত্রীদের সমাগমের ওপর নজর রাখতে এবং তাঁদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে শহরের বিভিন্ন ঘাট সহ বিচালি ঘাটেও মোতায়েন ছিলেন আমাদের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর (ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট গ্রুপ বা ডিএমজি) দুই সদস্য। গত পরশুর ঘটনা, ১১ অক্টোবর বিকেল আন্দাজ সাড়ে পাঁচটা। আচমকাই ওই দুজন দেখেন, ঘাট থেকে নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন এক মহিলা, ভেসে যাচ্ছেন জলের তোড়ে। কী ঘটছে বুঝতে পেরে কালবিলম্ব না করে জলে ঝাঁপ দেন ডিএমজি সেপাই সৌমেন হাইত ও সিভিক ভলান্টিয়ার সঞ্জীব নস্কর, জলের স্রোত ছিল তীব্র কিন্তু হাল ছাড়েননি তাঁরা। শরীরের সমস্ত বল প্রয়োগ করে, নদীর স্রোত উপেক্ষা করে প্রাণে বাঁচিয়ে ওই মহিলাকে উদ্ধার করে ঘাটে ফিরিয়ে আনেন।
ঘাটে ফেরার পর সেই মহিলাকে নিরাপদ ভাবে তুলে আনেন দুজনে। আর কোনও ঝুঁকি না নিয়ে ওয়েস্ট পোর্ট থানার সাব-ইনসপেক্টর বাণীব্রত দত্তের হাতে তুলে দেওয়া হয় তাঁকে। সেখান থেকেই তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। জানা গেছে, জোড়াবাগান থানা এলাকার বাসিন্দা ওই মহিলার নাম গুলনাজ খাতুন। তাঁর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন বাণীব্রত, এবং চিকিৎসার পর তাঁদের হাতে তাঁকে তুলে দেন।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Click to Go Up
    error: Content is protected !!